Share |

অ্যাসিড বিক্রি নিয়ন্ত্রণের ঘোষণা হোম সেক্রেটারির

লন্ডন, ৯ অক্টোবর : ব্রিটেনে একের পর এক অ্যাসিড হামলার ঘটনা বন্ধ করতে এবার অ্যাসিড বিক্রির উপর কঠোরতা জারির ঘোষণা দিয়েছেন হোম সেক্রেটারি অ্যাম্বার রাড। গত সপ্তাহে ম্যানচেস্টারে অনুষ্ঠিত দলীয় সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন তিনি।  ১৮ বছরের কম বয়সীদের কাছে অ্যাসিড বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।  
অ্যাসিড বিক্রির রাশ টেনে ধরতে বেশ কয়েকটি পদক্ষেপ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে এসিড হামলা বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষিতে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।  
ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সালফিউরিক এসিড বিক্রির পরিমাণ একেবারে সীমিত করে দেওয়া হবে। এর পাশাপাশি এ ধরনের অপরাধের ব্যাপারে পুলিশকে আরও বাড়তি ক্ষমতা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের।
অ্যাসিড বিক্রিতে সরকারের পরিকল্পনার একটা সম্ভাব্য রূপরেখারও ইঙ্গিত করেন অ্যাম্বার রাড। এ সময় তিনি ছুরি বহনে নিষেধাজ্ঞার কথা উল্লেখ করেন। ওই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে চার বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান রয়েছে।
অ্যাম্বার রুড বলেন, এসিড হামলা নিঃসন্দেহে একটা ঘৃণিত কাজ। আপনারা সবাই ক্ষতিগ্রস্তদের ছবি দেখেছেন, তাদের কখনো পুরোপুরি আরোগ্য হয় না। এর সীমাহীন যন্ত্রণা ঘটনার শিকার ব্যক্তির জীবনকে ধ্বংস করে দেয়। আমাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে, জনসাধারণের কাছে ব্যাপকভাবে স্যালফিউরিক এসিডের বিক্রি সীমিত করে দেওয়া। হোম অফিস বলছে, বিষয়টি সরকারের বিবেচনাধীন রয়েছে। তবে বিক্রেতারা যদি এটা দেখাতে পারেন যে, এসিড বিক্রিতে তারা সব যুক্তিসঙ্গত সতর্কতা গ্রহণ করেছে তাহলে তারা নিস্তার পাবেন। এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হলে ১৮ বছরের কম বয়সীদের হাতে অ্যাসিড পৌঁছানো বা বহন করা কঠিন হয়ে পড়বে।
সরকারি হিসাবে, ২০১২ সালের পর থেকে ইংল্যান্ডে এসিড এবং এসিড জাতীয় হামলা দ্বিগুণ হয়েছে। বিশেষ করে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে রাজধানী লন্ডনে অ্যাসিড হামলা নাটকীয়ভাবে বেড়েছে। স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের  হিসাবে, ২০১৫ সালে লন্ডনে ২৬১টি এসিড হামলার ঘটনা ঘটেছে। গতবছর এটা বেড়ে ৪৫৮-তে দাঁড়িয়েছে। চলতি বছর এ পর্যন্ত ১২৪টি এসিড হামলার ঘটনা নথিভুক্ত করেছে পুলিশ।