Share |

এবারের ১১ নোবেল বিজয়ীর ৮ জনই যুক্তরাষ্ট্রের

০৯ অক্টোবর : সোমবার অর্থনীতিতে নোবেল ঘোষণার মধ্য দিয়ে ছয়টি ক্ষেত্রে চলতি বছরে নোবেল জয়ীদের নাম ঘোষণা শেষ হয়েছে। বরাবরের মত এবারের নোবেল প্রাপ্তিতেও রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের আধিপত্য।
এ বছরে মোট ছয়টি ক্ষেত্রে নোবেল জিতেছে ১১ ব্যক্তি ও একটি প্রতিষ্ঠান। এ ১১ ব্যক্তির মধ্যে ৮ জনই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এবং দুই জন যুক্তরাজ্যের। বাকি একজন সুইজারল্যান্ডের। এছাড়া শান্তিতে নোবেল জিতেছে পরমাণু অস্ত্রের বিস্তার রোধে কাজ করা সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল ক্যাম্পেইন টু অ্যাবোলিশ নিউক্লিয়ার উইপন্স (আইক্যান)।
এদের মধ্যে পদার্থবিদ্যা এবং চিকিৎসা বিজ্ঞানে যৌথভাবে নোবেল জয়ী ছয় জনই যুক্তরাষ্ট্রের। এছাড়া রসায়নে তিন নোবেল বিজয়ীর একজন যুক্তরাষ্ট্রের, অন্য দুইজন যুক্তরাজ্য ও সুইজারল্যান্ডের। আর অর্থনীতিতে নোবেল জিতেছেন আরেক মার্কিন নাগরিক। পদার্থবিদ্যায় নোবেল জয়ী তিন মার্কিন নাগরিক হলেন- রেইনার ওয়েইস, ব্যারি ব্যারিশ ও কিপ থ্রোন। বিজ্ঞান গবেষণায় যুক্তরাষ্ট্রের ’মেগা প্রকল্প’  মহাকর্ষীয় ত্বরণ শনাক্তকরণ গবেষণাগার (লেজার ইন্টারফেরোমিটার গ্রাভিটেশনাল অবজারভেটরি) বা ’লিগো প্রজেক্টে’র সাফল্যের স্বীকৃতি পেয়েছেন এই তিন বিজ্ঞানী।
চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল জয়ী তিন মার্কিন নাগরিক হলেন- জেফ্রি হল, মাইকেল রোসব্যাস এবং মাইকেল ইয়ং। সার্কেডিয়ান ছন্দ বা দেহঘড়ি যেভাবে নিয়ন্ত্রিত হয় তার সূত্র উদঘাটনের জন্য এ পুরস্কার পেলেন তারা।
এছাড়া অর্থনীতিতে নোবেল জিতেছেন আরেক মার্কিন নাগরিক রিচার্ড থ্যালার। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব শিকাগো ও বুথ স্কুল অব বিজনেসের আচরণগত বিজ্ঞান ও অর্থনীতির অধ্যাপক। তিনি বিশ্বব্যাপী পরিচিতি লাভ করেন আচরণগত অর্থনীতির তাত্ত্বিক হিসেবেই। এ বছর রসায়নে নোবেল পুরস্কার যৌথভাবে লাভ করেন সুইজারল্যান্ডের লুজান বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যাক দুবোশেট, যুক্তরাষ্ট্রের কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের জোয়াশিম ফ্রাঙ্ক এবং যুক্তরাজ্যের ক্যাম্ব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের রিচার্ড হেন্ডারসন।
এছাড়া এ বছর সাহিত্যে নোবেল জিতেছেন ব্রিটিশ লেখক কাজুও ইশিগুরো। নোবেল কমিটির পক্ষ থেকে এই ব্রিটিশ লেখকের ব্যাপক প্রশংসা করে বলা হয় হয় ”এই লেখক নিজের আদর্শ ঠিক রেখে, আবেগপ্রবণ শক্তি দিয়ে বিশ্বের সঙ্গে আমাদের সংযোগ ঘটিয়েছেন”। তিনি আটটি বই লিখেছেন, যা মোট চল্লিশটি ভাষায় অনূদিত হয়েছে।