Share |

এলাকার উন্নয়নই আমার রাজনীতি : শফিক চৌধুরী

লন্ডন, ১২ মার্চ : সিলেট-২ এর সাবেক সংসদ সদস্য, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেছেন, বিশ্বনাথ বালাগঞ্জ ওসমানী নগরের উন্নয়নের রাজনীতিই আমার রাজনীতি। এমপি হিসেবে আমার পাঁচ বছরই ছিল উন্নয়নের স্বর্ণযুগ, বিশেষ করে রাস্তা ঘাট, পুল কালবাট, বিদ্যুতায়নসহ প্রকৃত ঊন্নয়ন মানুষের কাছে পৌছে দিয়েছি, সন্ত্রাসীদের বিতাড়িত করে শান্তি ও শৃঙ্খলা ফিরিয়ে এনেছিলাম, তিনি গত ৫ মার্চ সোমবার পূর্ব লন্ডনে অভিজাত আট্রিয়াম হলে বিশ্বনাথ বালাগঞ্জ ওসমানীনগরবাসীর এক সমাবেশে এসব কথা বলেন।
বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কমিউনিটি নেতা আফতাব আলীর সভাপতিত্বে ও যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক শাহ শামীম আহমেদ ও জনসংযোগ সম্পাদক ও বালাগঞ্জ প্রবাসী এডুকেশন ট্রাস্টের সভাপতি রবীন পালের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে শফিক চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের সফল প্রধানমনমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি এসেছে, এই অগ্রযাত্রা অব্যাহত রেখে একটি উন্নত সমৃদ্ধি বাংলাদেশ গড়তে জননেত্রী ও প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় নিয়ে আসতে হবে। তিনি শেখ হাসিনা ও বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ রেহানা দীর্ঘায়ু কামনা করে বলেন তারা আমাকে যে বিশ্বাস করেন ভালবাসেন প্রয়োজনে তা আমার জীবন দিয়ে হলেও রক্ষা করবো। তিনি বলেন, বিশ্বনাথ বালাগঞ্জ ওসমানীনগরের সিট ঐতিহাসিকভাবে আওয়ামী লীগের ঘাটি, নৌকার ঘাটি, শেখ হাসিনার ঘাটি। এই সিট এবার কোন ভাড়াটিয়া নিয়ে যেতে পারবেনা, এই সিটে কোন যুদ্ধাপরাধী কোন ফ্রিডম পার্টির বংশধরা নমিনেশন পাবেনা। ইনশাআল্লাহ আপনাদের সেবক, আপনাদের স্নেহের শফিকই নমিনেশন পাবে। তিনি মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল প্রবাসীদের আগামী নির্বাচনে দেশে গিয়ে নৌকার পক্ষে নির্বাচনে কাজ করতে দেশে যাওয়ার আহবান জানান। শফিক চৌধুরী বিএনপি-জামাতের দুঃশাসনের চিত্র তুলে ধরে বলেন, তারা বাংলাদেশকে একটি সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিদের আখড়ায় পরিণত করেছিল। রাষ্ট্রের হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাট করেছে এমনকি এতিমের টাকাও আত্মসাত করেছে। খালেদা জিয়া তার শাস্তি ভোগ করছেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলার পরিকল্পনাকারী তারেক রহমান লন্ডনে বসে বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছেন। তার ইন্ধনে বাংলাদেশ হাইকমিশনে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে দাবী করে তিনি বলেন, অবিলম্বে তাকে দেশে ফিরিয়ে নিয়ে তার কুকর্মের শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। তিনি শাহ জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. জাফর ইকবালে উপর সন্ত্রী হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেন বিএনপি জামাতের মদদে এই হামলা হয়েছে, তিনি যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহর থেকে আগত নেতাকর্মীদের কৃতজ্ঞতা জানান।
অসুস্থতার জন্য সভায় আসতে না পেরে টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তৃতা করেন প্রখ্যাত সাংবাদিক অমর একুশে গানের রচয়িতা আবদুল গাফফার চৌধুরী। তিনি শফিক চৌধুরীর পারিবারিক ঐতিহ্য তুলে ধরে মুক্তিযুদ্ধে তার পরিবারের অবদানের কথা স্মরণ করে বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন হিসেবে বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে যুক্তরাজ্যে প্রবাসী ও বিশ্বনাথ বালাগঞ্জ ওসমানীনগরবাসীর তিনিই একমাত্র যোগ্য প্রতিনিধি। তিনি শফিক চৌধুরীর সফলতা কামনা করে বলেন, আমি আশাকরি আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনিই নৌকা প্রতীকে নির্বাচনে করে সংসদ সদস্য হয়ে জনগণের সেবায় নিয়োজিত হবেন।