Share |

আরতা’র ৫০ হাজার পাউন্ড মূল্যের ট্রফি উন্মোচন

লন্ডন, ১৪ মে : গত ১০ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এশিয়ান রেস্টুরেন্ট এন্ড টেকওয়ে অ্যাওয়ার্ড- সংক্ষেপে আরতা’র জাতীয় পর্যায়ে মনোনয়নপর্ব শেষ হবে শীঘ্রই। ইতিমধ্যে অনলাইনে পছন্দের প্রায় ২৩০০ রেস্টুরেন্ট ও টেকওয়েকে তাদের কাস্টমাররা মনোনয়ন দিয়েছেন। আরতা’র গ্রান্ড ফিনালি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর। প্রায়?আড়াই হাজার ধারণক্ষমতাসম্পন্ন ইউরোপের বৃহত্তম হোটেল বলরুম ভেন্যু লন্ডন ও-টু (০২) ইন্টার কন্টিনেন্টালেই হবে এই চুড়ান্ত জমকালো আসর।

এই বর্ণাঢ্য আয়োজনকে সামনে রেখে গত ১১ মে শুক্রবার ও-টু ভেন্যুতে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় অনুষ্ঠানস্থল সাংবাদিকদের ঘুরিয়ে দেখান আয়োজকরা। এসময় আরতার সেরাদের সেরা চ্যাম্পিয়ান অব দ্য চ্যাম্পিয়ানস অ্যাওয়ার্ডে ৫০ হাজার পাউন্ড মূল্যের ট্রফি (প্রটোটাইপ) প্রদর্শন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আরতা’র অ্যাওয়ার্ড ফাউন্ডার এম এ মুনিম সালিক, আরতা মেম্বার ক্যানারি ওয়ার্ফ গ্রুপের কমিউনিটি এফেয়ার্সের এসোসিয়েট ডাইরেক্টর জাকির খান, আরতার স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য রাজ্জাক আমিন শহিদ, কো-ফাউন্ডার বদরুল ইসলাম, সুফি মিয়া । এসময় বক্তারা বলেন, আরতা নানা ব্যতিক্রমের কারণেই কারী ইন্ডাস্ট্রির অ্যাওয়ার্ড সংস্কৃতিতে আলাদা অবস্থান করে নেবে। আরতা’র অ্যাওয়ার্ড ফাউন্ডার এম এ মুনিম সালিক মনোনয়ন প্রক্রিয়া সম্পর্কে বর্ণনা দিতে গিয়ে জানান, ১৬টি রিজিওনে সরাসরি আলাদা আলাদা অনুষ্ঠান করে রিজিওনাল ১০ জন সেরা ও একজন রিজিওনাল চ্যাম্পিয়ান বাছাই করা হবে। গ্র্যান্ড ফিনালির মাধ্যমে রিজিওনাল রেস্টুরেন্ট অব দ্য ইয়ার ঘোষণার পাশাপাশি প্রদান করা হবে একটি ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ান অব দ্য চ্যাম্পিয়ানস এওয়ার্ড। স্বর্ণখচিত এই ট্রফির ব্যয় প্রায় ৫০ হাজার পাউন্ড বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা। থাকবে নিউকামার এবং একটি শেফ অব দ্য ইয়ার অ্যাওয়াডস। এছাড়া মনোনয়নদাতা রেস্টুরেন্ট কাস্টমারদের জন্য একটি ব্র্যান্ড নিউ কারসহ থাকছে আরো নানা পুরস্কার।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, আরতা অ্যাওয়ার্ডে স্কোরিং ১০০ মার্কের মধ্যে ৩০ মার্ক নির্ভর করবে গুগল, ট্রিপ এডভাইজার এবং কাউন্সিলের ফুড হাইজিন রেইট-ইত্যাদি রিভিউ-এর ওপর। কাস্টমার মনোনয়নে থাকবে ৩০ মার্ক যেখানে খাবার, সেবার মান এবং ভ্যালু ফর মানির বিষয়টি গুরুত্ব পাবে। আর বাকী ৪০ মার্ক থাকবে রান্নায়?যেখানে খাবারের স্বাদ, উপস্থাপনা ও সুগন্ধা ইত্যাদির দিকে বিশেষ নজর দেবেন বিচারকরা।