Share |

আরও কঠিন হলো এমওটি টেস্ট

পত্রিকা রিপোর্ট
লন্ডন, ২১ মে : ব্রিটেনের গাড়ির ফিটনেস বা এমওটি টেস্টের নতুন নিয়ম চালু হয়েছে। গত রোববার থেকে চালু হওয়া এই নিয়মে গাড়ির ফিটনেস সার্টিফিকেট দেয়ার  ক্ষেত্রে কিছু নতুন শর্ত যুক্ত করা হয়েছে। নতুন নিয়মে পাঁচটি ক্যাটাগরিতে একটি গাড়ির অবস্থা ব্যাখা করা  হবে। টেস্টের পর যে কোনো গাড়িকে ফেইল অথবা পাস সার্টিফিকেট দেওয়া হয়। তবে এরমধ্যে ৩টি ক্যাটাগরিতে যে কোনো গাড়িকে সরাসরি ফেইল বলে বিবেচনা করা হবে। এই তিনটি ক্যাটাগরি হলো- ডেঞ্জার, মেজর এবং মাইনর।  এমওটি টেস্টে ওই তিন ক্যাটাগরির কোনো সমস্যা ধরা পড়লে সেগুলো অবশ্যই ঠিক করিয়ে নিতে হবে। ত্রুটি মেরামত না করা পর্যন্ত এসব গাড়ি চালানো যাবে না। 
নতুন নিয়মে এমওটি টেস্ট আরো কঠিন হয়েছে ডিজেল ইঞ্জিল চালিত গাড়ির জন্যে। নতুন নিয়মের এমওটি টেস্টে ডিজেল চালিত গাড়িতে বায়ু দুষণমুক্ত রাখার জন্যে লাগানো ফিল্টারকেও এমওটি  টেস্টে পাস করতে হবে। এছাড়া ডিজেল চালিত  গাড়ির ইঞ্জিনের ধোয়া যদি ভিন্ন রংয়ের হয়। অথবা যদি প্রমাণিত হয় যে, ডিজেল ইঞ্জিনের এক্সস্টের কোনো ফি?ার গরম হয়ে আছে তাহলে সেই গাড়ি এমওটি টেস্টে ফেইল বলে বিবেচিত হবে। আর নতুন নিয়ম অনুযায়ী এমওটি টেস্টে এই সমস্যাকে ‘মেজর’ বলে ধরে নেওয়া হবে।
এমওটি টেস্টে সমস্যা চি?িত হবার পর নতুন নিয়মে গাড়িগুলোকে যে ৫টি শ্রেণিতে মূল্যায়ন করা হবে, সেগুলো হলো-  ড্যাঞ্জার : এই ক্যাটাগরির গাড়ি এমওটি টেস্টে সরাসরি ফেইল হিসেবে গণ্য হবে। যেসব গাড়ি সরাসরি বা তাৎক্ষনিকভাবে রোডে বিপজ্জনক এবং পরিবেশের জন্যে ঝুঁকিপূর্ণ, সেইসব গাড়ি ড্যাঞ্জার ক্যাটাগরির হিসেবে বিবেচিত হয়। এসব গাড়িগুলোকে পরিপূর্ণ মেরামত না করে কোনোভাবেই রোডে নামানোর অনুমতি দেওয়া হবে না।
মেজর : যেসব গাড়ি রোডে অন্য গাড়ি বা পরিবেশের জন্যে ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে হবে সেগুলোকে ‘মেজর’ ক্যাটাগরিতে রাখা হবে। তবে এই ক্যাটাগরির কার, ভেন এবং মোটরসাইকেলকে তাৎক্ষনিকভাবে মেরামতের পরামর্শ দেওয়া হবে।
মাইনর: যেসব গাড়িতে বিশেষ কোনো ত্রুটি নেই,  রাস্তায় চলাচল কিংবা পরিবেশের জন্য বড় ধরণের ক্ষতিকর নয়, সেগুলোকে মাইনর ক্যাটাগরিতে রাখা হবে। এসব গাড়িতে ছোটখাটো সমস্যা থাকে। তবে তা তাৎক্ষনিকভাবে সারিয়ে নেয়ার শর্তে এমওটি পাস দেয়া হতে পারে।  এডভাইসারি : যেসব গাড়ির ইঞ্জিনে অদূর ভবিষ্যতে ছোট্টখাটো সমস্যা দেখা দিতে পারে, সেইসব গাড়িকে এমওটি টেস্টে ‘এডভাইসারি’ ক্যাটাগরির হিসেবে পাশ দেয়া হবে। তবে পরামর্শ দেওয়া হবে সমস্যাটি পর্যবেক্ষণে রেখে মেরামতের জন্যে।
পাস : এমওটি টেস্টে যেসব গাড়ির যথযথ মান বজায় রয়েছে সেগুলোকে সরাসরি পাস দেয়া হবে।