Share |

লন্ডন ব্রিজ হামলার এক বছর : সন্ত্রাস মোকাবেলায় নতুন কৌশল ঘোষণা

পত্রিকা রিপোর্ট
লন্ডন, ০৪ জুন : লন্ডন ব্রিজ এলাকায় যে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছিল, গত ৩ জুন রোববার সেই হামলার এক বছর পূর্ণ হয়। এদিন হতাহতদের স্মরণে জাতীয়ভাবে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।  সেই সঙ্গে হামলাস্থলে পু?স্তবক অর্পণ এবং সাদাক ক্যাথাড্রালে বিশেষ প্রার্থনা আয়োজনের মধ্যদিয়ে দিবসটি পালন করা হয়।
প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে, লন্ডন মেয়র সাদিক খান, হোম সেক্রেটারি সাজিদ জাভিদ এবং মেট পুলিশের প্রধান ক্রেডিসা ডিকসহ সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা এতে অংশ নেন।
গত বছরের ৩ জুন লন্ডন ব্রিজ ও পার্শ্ববর্তী বারা মার্কেট এলাকায় পথচারিদের ওপর গাড়ি উঠিয়ে এবং ছুরি দিয়ে হামলা চালালে ৮জন নিহত হয়। আহত হয় আরও ৪৮ জন। ইসলামিক উগ্রবাদী তিনজন সন্ত্রাসী ওই হামলা চালায়। হামলাকারীরা ঘটনাস্থলে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়।
এদিকে সন্ত্রাস দমনে নতুন কর্মকৌশল ঘোষণা করেছেন হোম সেক্রেটারি সাজিদ জাভিদ। গত সোমবার নিরাপত্তা বিষয়ক এক বক্তৃতায় তিনি জানান, এখন থেকে গোয়েন্দা সংস্থা এমআই ফাইভ সম্ভাব্য সন্ত্রাসী ও উগ্রবাদীদের তালিকা স্থানীয় পুলিশ, কাউন্সিল এবং সন্ত্রাসবাদ নিয়ে কাজ করে এমন চ্যারিটি সংগঠনগুলোর সাথে শেয়ার করবে।
সাজিদ জাভিদ বলেন, সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর সাথে দ্রুত তথ্য শেয়ার করার মাধ্যমে সন্ত্রাসবাদের ঝুঁকি কমানো সম্ভব। তিনি বলেন. সন্ত্রাসবাদ ও উগ্রবাদের ঝুঁকি মোকাবেলার কাজটি গোয়েন্দা সংস্থার পাশাপাশি স্থানীয়ভাবেও মোকাবেলা করতে হবে।
হোম সেক্রেটারি হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর এটিই নিরাপত্তা প্রশ্নে জাভিদের প্রথম কোনো বক্তৃতা।
সাজিদ জাভিদ জানান, গত পাঁচ বছরে ইসলামিক উগ্রবাদের সাথে যুক্ত ২৫টি হামলার সক্রিয় পরিকল্পনা নস্যাত করে দিতে সক্ষম হয়েছে এমআই ফাইভ। ২০১৭ সাল থেকে তারা বড় চারটি হামলার পরিকল্পনা  ঠেকিয়ে দিয়েছে।
বর্তমানে ২০ হাজার লোক সম্ভাব্য হামলাকারী হিসেবে গোয়েন্দাদের তালিকায় রয়েছে।