Share |

ফের ক্ষমতায় এরদোয়ান

লন্ডন, ২৫ জুন : তুরস্কের নির্বাচনে জয়ী হয়ে দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেন রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। নির্বাচন কর্তৃপক্ষ-প্রধানের বরাত দিয়ে সোমবার বিবিসি জানিয়েছে, দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রথম দফায় এরদোয়ান বিজয়ী হয়েছেন। দেশটির কেন্দ্রীয় নির্বাচন কাউন্সিলের প্রধান সাদি গুভেনে বলেছেন, ‘প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান সব বৈধ ভোটে নিশ্চিতভাবে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছেন।’ তবে আর কোনো বিচ্চারিত কিছু বলেননি তিনি।
দেশটির গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে, ৯৯ শতাংশ ভোট গণনার পর দেখা গেছে, এরদোয়ান ৫৩ শতাংশ ভোট পেয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মুহাররেম ইনজি পেয়েছেন ৩১ শতাংশ ভোট।
বিরোধী দল এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে পরাজয় মেনে নেয়নি। তারা বলেছে, ফলাফল যা-ই হোক না কেন, তারা গণতন্ত্রের জন্য লড়াই চালিয়ে যাবে। তুরস্কের নির্বাচনপদ্ধতি অনুযায়ী এরদোয়ান যদি সার্বিকভাবে ৫০ শতাংশের বেশি ভোট পান, তাহলে তাঁকে বিজয়ী ঘোষণা করা হবে এবং দ্বিতীয় দফা নির্বাচনের আর প্রয়োজন হবে না।
গত রোববার একই দিনে প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় তুরস্কে। সবশেষ ফলাফল অনুযায়ী পার্লামেন্ট নির্বাচনেও এরদোয়ানের একে পার্টি এগিয়ে আছে। এরদোয়ান বলেছেন, ‘পুরো বিশ্বকে গণতন্ত্রের একটি শিক্ষা দিল তুরস্ক।’
বিবিসি জানিয়েছে, এরদোয়ান ২০১৪ সালে প্রেসিডেন্ট হওয়ার আগে ১১ বছর প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। তুরস্কে ২০১৬ সালে তাঁর বিরুদ্ধে এক ব্যর্থ অভ্যুত্থানের পর থেকে দেশটিতে জরুরি অবস্থা চলছে।এরদোয়ান প্রেসিডেন্ট হিসেবে দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। তুরস্কের সংবিধানে তিনি যে পরিবর্তন এনেছেন, তাতে  প্রেসিডেন্টকে নতুন এবং ব্যাপক ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে।
সমালোচকেরা যুক্তি দিয়ে বলছেন, এতে একজনের হাতে ব্যাপক ক্ষমতা কেন্দ্রীভূত হয়ে যাবে। তুরস্কের ক্ষেত্রে ফ্রান্স বা যুক্তরাষ্ট্রের মতো নির্বাহী প্রেসিডেন্সিতে যে ভারসাম্য আছে, তাতে ঘাটতি দেখা যাবে।
রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম অনুযায়ী এবার নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন ৮৭ শতাংশ ভোটার। এরদোয়ান বলেছেন, ‘আশা করি, কেউ ফলাফলের ওপর ছায়া ফেলার চেষ্টা করবেন না।’
কয়েকটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এক সাংবাদিকের কাছে বার্তা দিয়ে পরাজয় মেনে নিয়েছেন বিরোধী দল সিএইচপির প্রার্থী ইনজি। তবে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
ভোটের আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণার পর নিজের প্রতিক্রিয়া জানাবেন ইনজি।