Share |

বাংলাদেশে সংবাদমাধ্যম অবাধ স্বাধীনতা ভোগ করছে : লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবে তথ্যমন্ত্রী

পত্রিকা প্রতিবেদন
লন্ডন, ৮ জুলাই : বাংলাদেশে সংবাদমাধ্যম অবাধ স্বাধীনতা ভোগ করছে বলে দাবী করেছেন দেশটির তথ্যমন্ত্রী ডক্টর হাসান মাহমুদ। গত ৪ জুলাই বৃহস্পতিবার লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাব কার্যালয়ে আয়োজিত এক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠানে তথ্য মন্ত্রী আরো বলেন, ভুল সংবাদ পরিবেশনের কারণে এই বিলেতে সংবাদ মাধ্যম বন্ধ হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশে সংবাদ মাধ্যম বন্ধের প্রমাণ নেই। মন্ত্রী বলেন, সংবাদ মাধ্যম বা ডিজিটাল মিডিয়ার স্বাধীনতা কারো জন্যে যাতে বিপজ্জনক বা বিরক্তির কারণ না হয় সেই বিষয়টিতে সরকার জোর দিচ্ছে সরকার।
সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতার উপর একটি সেমিনারে যোগ দিতে বর্তমানে লন্ডনে অবস্থানরত তথ্যমন্ত্রী ডক্টর মোহাম্মদ হাসান মাহমুদ। এ সুযোগে তাঁর সঙ্গে এই প্রশ্ন-উত্তর পর্বের আয়োজন করে লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাব। ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জুবায়েরের পরিচালনায় এতে সভাপতিত্ব করেন ক্লাব প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ এমদাদুল হক চৌধুরী। সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের পর সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন তথ্যমন্ত্রী।  মন্ত্রী বলেন, সংবাদ ও সামাজিক মাধ্যমের স্বাধীনতার অপপ্রয়োগ নিশ্চিত করতে সরকার বদ্ধ পরিকর। দেশে এখনো এখনো প্রায় ১শ ৫০টি টেলিভিশনের লাইসেন্সের আবেদন পড়ে আছে।  
তিনি যুক্তরাজ্যে বাংলা সাংবাদিকতার দীর্ঘ ঐতিহ্যের কথা উল্লেখ করেন এবং এ ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতা রক্ষার ক্ষেত্রে এখানকার বাংলাভাষী সাংবাদিকরা যে ভূমিকা রেখে চলেছেন তার প্রশংসা করেন।  
মন্ত্রী বলেন, ‘লন্ডন-বাংলা প্রেস ক্লাব বাংলাদেশের বাইরে বাংলা ভাষী সাংবাদিকদের একটি অন্যতম প্রতিষ্ঠান এবং এ প্রেসক্লাবের উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকার সম্ভাব্য সব সহযোগিতা করবে।’  
সংবাদ মাধ্যমের পাশাপাশি রাজনৈতিক প্রশ্নের মুখোমুখিও হন মন্ত্রী। সংসদে বিএনপির ভূমিকার প্রসঙ্গ টেনে আনেন মন্ত্রী। বলেন, সংসদে দাঁড়িয়ে সংসদকে অবৈধ বললেও তাতে গণতান্ত্রিক চর্চা হচ্ছে।  
বাংলাদেশে দলীয় গণন্ত্রের ক্সেত্রে আওয়ামী লীগ এগিয়ে বলেও মন্তব্য করেন তথ্যমন্ত্রী ডক্টর হাসান মাহমুদ।  অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য ক্লাবের ট্রেজারার আ স ম মাসুম এবং ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন ভাইস প্রেসিডেন্ট ব্যারিষ্টার তারেক চৌধুরী।