Share |

শান্তিতে নোবেল পাচ্ছে গ্রেটা?

লন্ডন, ০৭ অক্টোবর : চলতি বছর নোবেল পুরস্কার দেওয়া শুরু হচ্ছে আগামী সোমবার থেকে। নোবেলের জন্য এ বছর মনোনয়ন পেয়েছে ২২৩ জন এবং ৭৮টি প্রতিষ্ঠান। কারা নোবেল পাচ্ছেন- এটা নিয়ে ইতিমধ্যে নানা জল্পনা-কল্পনা শুরু হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা এ বিষয়ে সতর্ক। কিন্তু যাঁরা বাজি ধরছেন, তাঁরা বলছেন, অন্য কারও চেয়ে এবার সুইডেনের সেই কিশোরী পরিবেশকর্মী গ্রেটা থুনবার্গেরই নোবেল পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি।  যৌন হয়রানি কেলেঙ্কারির ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাহিত্যে গত বছর নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়নি। ফলে এবার গত বছর এবং চলতি বছর-সাহিত্যের দুটি পুরস্কারই দেওয়া হচ্ছে।
জুয়ারি প্রতিষ্ঠান হিসেবে খ্যাতি রয়েছে ল্যাডব্রোকেসের। তারা বলছে, বিশ্বব্যাপী লাখো তরুণের নিয়ে জলবায়ু পরিবর্তন ঠেকাতে যে আন্দোলন গড়ে তুলেছে, এ জন্য নোবেল পাবে ১৬ বছর বয়সী গ্রেটা। তার এই আন্দোলনের নাম ‘ফ্রাইডেস ফর ফিউচার’।
যেকোনো ধরনের অনুমানের ওপর অনিশ্চয়তা বেশি কাজ করে। এ ছাড়া নোবেল কমিটি যেহেতু ওই পুরস্কার দেওয়ার আগে তালিকায় থাকা নামগুলো প্রকাশ করে না, ফলে জল্পনা-কল্পনা আরও বেশি। আবার সহিংসতা ঠেকাতে অবদান, না জলবায়ু পরিবর্তন ঠেকাতে অবদান রাখায় নোবেল দেওয়া হবে, এটা নিয়েও একধরনের বিতর্ক রয়েছে বিশেষজ্ঞদের মধ্যে। ফলে অনিশ্চয়তা আরও বেশি।
নরওয়ের রাজধানী অসলোতে ১১ অক্টোবর শান্তিতে নোবেল পুরস্কার ঘোষণা করা হবে। এর আগের দিন ঘোষণা করা হবে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার। ওই দিন সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে শান্তিতে মনোনয়ন পাওয়া কয়েকজনের নাম প্রকাশ করা হবে।
গত বছর শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন গণপ্রজাতান্ত্রিক কঙ্গোর নাগরিক ডেনিস মুকওয়েগে এবং ইরাকের মানবাধিকারকর্মী নাদিয়া মুরাদ। যৌন সহিংসতা ঠেকাতে অবদান রাখায় তাঁদের নোবেল দেওয়া হয়। কিন্তু এবার অনেকেই বাজি ধরছেন, গ্রেটা থুনবার্গ পাবে শান্তিতে নোবেল। সম্প্রতি দুটি পুরস্কার পেয়েছে সে। যুক্তরাজ্যের লন্ডনভিত্তিক মানবাধিকারবিষয়ক বেসরকারি প্রতিষ্ঠান অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল তাদের সর্বোচ্চ সম্মাননা পুরস্কার দিয়েছে গ্রেটাকে। এ ছাড়া সুইডেনের বিকল্প নোবেলখ্যাত ‘২০১৯ রাইট লাইভলিহুড অ্যাওয়ার্ড’ পাচ্ছে সে।
এই জল্পনা-কল্পনার মধ্যে গ্রেটার পক্ষে কথা বলেছেন স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পরিচালক ডান স্মিত। তিনি বলেন, গত কয়েক বছরে গ্রেটা যা করেছে, তা অসাধারণ। শান্তি ও নিরাপত্তার সঙ্গে জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়টি ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত।
তবে পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউট অসলোর হেনরিক উরডাল বলেছেন, তাঁর ধারণা, গ্রেটা নোবেল পাবে না। এবার সম্ভাবনা খুবই কম। এবার কারা শান্তিতে নোবেল পেতে পারেন, তার একটি ইঙ্গিতও দিয়েছেন হেনরিক। তিনি বলেন, ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ এবার নোবেল পেতে পারেন। কারণ তাঁর প্রচেষ্টায় ইরিত্রিয়ার সঙ্গে ইথিওপিয়ার শত্রুতাপূর্ণ মনোভাবের অবসান হয়েছে। এ ছাড়া দুটি প্রতিষ্ঠান রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডারস এবং কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্টও পেতে পারে এই পুরস্কার।