Share |

শাহজালাল ব্যাংকের পরিচালক পর্ষদের সভা ও নির্বাচন সম্পন্ন

সানাউল্লাহ চেয়ারম্যান, হারুন মিয়া ও আব্দুল বারেক ভাইস চেয়ারম্যান
লন্ডন, ২০ জানুয়ারি : শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের পরিচালক পর্ষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন মোঃ সানাউল্লাহ সাহিদ। পরিচালক পর্ষদের ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন ব্রিটেনে বাংলাদেশি কমিউনিটিতে পরিচিত মুখ বিশিষ্ট ব্যবসায়ী কুশিয়ারা ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড এবং কুশিয়ারা ট্রাভেলস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ হারুন মিয়া ও মোঃ আব্দুল বারেক। গত ৮ জানুয়ারি ব্যাংকটির পরিচালক পর্ষদের ২৯২তম সভায় সর্বসম্মতিক্রমে তাদের নির্বাচিত করা হয়।
নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান সানাউল্লাহ সাহিদ ১৯৬৩ সালে ঢাকার এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি বাণিজ্যে স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রী লাভের পর ব্যবসা-বাণিজ্য শুরু করেন। সানাউল্লাহ সাহিদ শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের একজন স্পনসর শেয়ারহো?ার এবং শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক সিকিউরিটিজের ভাইস চেয়ারম্যান। তাছাড়া তিনি স্যামসাং ব্রান্ডের ইলেকট্রনিক্স পণ্যের বাজারজাতকারী প্রতিষ্ঠান ইলেকট্রা ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও ইলেকট্রা কনজিউমার ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড এবং ফেডারেল সিকিউরিটিজ এন্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের  পরিচালক। সাহিদ কাশমীর ক্যামিক্যাল কোং, সাজাওয়া ব্রাদার্স এবং ইলেকট্রা ফার্নিচারের অংশীদার। তিনি বহু সামাজিক প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত। নবনির্বাচিত ভাইস-চেয়ারম্যান যুক্তরাজ্যভিত্তিক ব্যবসায়ী মোঃ হারুন মিয়া সিলেট জেলার গোলাপগঞ্জ উপজেলাধীন চন্দপুরে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে ১৯৬১ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি পূর্ব লন্ডনের কমার্শিয়াল রোডস্থ কুশিয়ারা ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড এবং কুশিয়ারা ট্রাভেলস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। এছাড়া তিনি শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক সিকিউরিটিজ লিমিটেড, কুশিয়ারা ক্যাশ এন্ড ক্যারী, বাংলা ফ্রোজেন ফুড লিমিটেডের পরিচালক এবং ঢাকাস্থ প্রীতম ইন হোটেলের চেয়ারম্যান। এছাড়া তিনি বহু আর্থ-সামজিক প্রতিষ্ঠানের সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ জড়িত রয়েছেন। নবনির্বাচিত অপর ভাইস-চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল বারেক ১৯৬০ সালে চাঁদপুর জেলাধীন মতলব উপজেলার এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি শিক্ষা জীবন শেষ করার পর ব্যবসা শুরু করেন। আব্দুল বারেক শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড এবং শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক সিকিউরিটিজ লিমিটেডের একজন উদ্যোক্তা পরিচালক। তিনি আরজু ইলেকট্রনিক্স, জনি ইলেকট্রনিক্স এবং রনি ইলেকট্রনিক্সের স্বত্ত্ব¡াধিকারী। তিনি দুই দশকের অধিক সময় ধরে ব্যবসা বাণিজ্য পরিচালনা করে আসছেন।