Share |

‘কমিউনিটি ল্যাঙ্গুয়েজ সার্ভিস’ বিলুপ্তির সিদ্ধান্তে জিএসসি ইস্ট লন্ডন শাখার প্রতিবাদ সভা

লন্ডন, ২৭ জানুয়ারি : বাজেটের অজুহাত দেখিয়ে টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল কর্তৃক ‘কমিউনিটি ল্যাঙ্গুয়েজ সার্ভিস’ সম্পূর্ণরূপে বিলুপ্তির সিদ্ধান্তকে অযৌক্তিক দাবী করে এই সার্ভিস বাঁচিয়ে রাখতে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছে গ্রেটার সিলেট ডেভেলাপমেন্ট এন্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল ইন ইউকে।
দীর্ঘদিনের প্রতিষ্ঠিত ও সফল এই ব্যবস্থাটি সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করে দিতে স্থানীয় কাউন্সিলের নেওয়া পদক্ষেপের প্রতিবাদে গত ২০ জানুয়ারী সংগঠনের এক সভায় এই অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন নেতৃবৃন্দ।
গ্রেটার সিলেট ডেভেলাপমেন্ট এন্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল ইন ইউকের ইস্ট লন্ডন শাখার উদ্যোগে জিএসসির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এই প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের চেয়ারপার্সন এম এ গফুর।
জিএসসি সাউথ ইস্ট রিজিওনের ট্রেজারার সুফী সুহেল আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জিএসসির কেন্দ্রীয় চেয়ারপার্সন ব্যারিস্টার আতাউর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জিএসসির পেট্রন কে এম আবু তাহের চৌধুরী, টিচার্স এসোসিয়েশন ইউকের সভাপতি মোঃ আবু হোসেন, জিএসসি সাউথ ইস্ট রিজিওনের চেয়ারপার্সন মোহাম্মদ ইছবাহ উদ্দিন, কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ আজিজ, জিএসসি সাউথ ইস্ট রিজিওনের সহ সভাপতি মাওলানা রফিক আহমদ রফিক ও মঞ্জুর রেজা চৌধুরী, সুনামগঞ্জ ওয়েলফেয়ারের সেক্রেটারী মোঃ আবাব মিয়া।
সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জন জীবন সম্পাদক ছমির উদ্দিন, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, সাব্বির আহমদ চৌধুরী, বিটিএ ট্রেজারার মিছবাহ আহমদ, কমিউনিটি নেতা ফারুক মিয়া, সংগঠনের সাউথ ইস্ট রিজিওনের প্রেস এন্ড পাবলিসিটি সেক্রেটারি আলাউর রহমান ওলি, আবু হোসেন, ইস্ট লন্ডন ব্রাঞ্চের ট্রেজারার আব্দুল নুর চৌধুরী, গোয়াইনঘাট ওয়েলফেয়ারের সাংঠনিক সম্পাদক খালেদুল কিবরিয়া, ফরিদ আহমদ, কাজী আকমল তাজ, আব্দুল মুকিত, ছুরুক মিয়া, মোঃ হুমায়ুুন কবির, নজমুল হক তুষার, এনামুল হক রুহেল, সালেহ আহমদ প্রমুখ।
সভায় বক্তারা বাংলা ভাষা শিক্ষাদান অব্যাহত রাখতে কাউন্সিল কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানান। বক্তারা বলেন, গত ৪১ বছর ধরে প্রচলিত ও টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল কর্তৃক পরিচালিত এই ’কমিউনিটি ল্যাঙ্গুয়েজ সার্ভিস’ স্থানীয় ১১টি মাতৃভাষা শিক্ষাদানের অত্যন্ত সফল একটি ব্যবস্থা। আর তাই কমিউনিটি ল্যাঙ্গুয়েজ সার্ভিসকে বাঁচিয়ে রাখতে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন চালিয়ে যেতে আমরা অঙ্গীকারাবদ্ধ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি