Share |

স্থানীয় নির্বাচন : কনজারভেটিভ দলকে বার্তা দিলো জনগণ

পত্রিকা ডেস্ক
লণ্ডন, ০৯ মে: গত ৫ মে যুক্তরাজ্যের ২০০টি কাউন্সিলের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে ১১টি কাউন্সিলের নিয়ন্ত্রণ হারানোর পাশাপাশি ৪৮৭টি কাউন্সিলার পদ হারিয়েছে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ দল। এই নির্বাচনকে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ দলের প্রতি জনগণের সতর্ক বার্তা হিসেবে দেখা হচ্ছে। নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির ফলে জীবনযাপন ব্যয় বেড়ে যাওয়ার কারণে সাধারণ মানুষ কষ্টে আছে। আবার কোভিড মোকাবেলায় সরকারী অর্থের বেপরোয়া খরচ এবং লকডাউন পার্টির কারণেও সমালোচনার মুখে পড়েছে কনজারভেটিভ দল। এবারের স্থানীয় সরকার নির্বাচনের ফলাফল দলটির প্রতি জনগণের অসন্তোষেরই প্রতিচ্ছবি। তবে ক্রয়ডন কাউন্সিলে নতুন চালু হওয়া নির্বাহী মেয়রের পদটি জিতে নেয়া কনজারভেটিভের বড় অর্জন হিসেবে দেখা হচ্ছে।
তবে ক্ষমতাসীনরা ভালো করতে না পারলেও তার সুবিধা এককভাবে নিতে ব্যর্থ হয়েছে বিরোধী দল লেবার পার্টি। দলটি নতুন করে ১১টি কাউন্সিলের নিয়ন্ত্রণ নিতে সক্ষম হলেও হারিয়েছে ৬টি কাউন্সিলের নিয়ন্ত্রণ। ফলে তাদের প্রাপ্তিতে যোগ হয়েছে মাত্র ৫টি কাউন্সিল। আর লিবারেল ডেমোক্র্যাট দল নতুন করে তিনটি কাউন্সিলের নিয়ন্ত্রণ নিতে সক্ষম হয়েছে।
কাউন্সিলার পদে ইংল্যাণ্ড, ওয়েলস এবং স্কটল্যাণ্ডের সব থেকে বেশি আসনে জয়ী লেবার পার্টি। লণ্ডনের কনজারভেটিভ ঘাঁটির বেশ কিছু আসন বরিস জনসনের দলের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে তারা। কিন্তু গোটা দেশে আশানুরূপ ফল হয়নি।
বেশ কয়েক মাস ধরে জনসনের কনজারভেটিভ পার্টির জনপ্রিয়তা নামছে। এর প্রধান কারণ, প্রধানমন্ত্রীর ‘পার্টিগেইট’ কেলেঙ্কারি।  কোভিড বিধি ভেঙে খাস প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে একাধিক মদের আসর বসিয়ে কড়া সমালোচনার মুখে পয়েছিলেন কনজারভেটিভ দলের নেতা জনসন। তা ছাড়া, গত কয়েক মাসের মূল্যবৃদ্ধিও সাধারণ মানুষকে শাসক দলের প্রতি আরও বিরূপ মনোভাবাপন্ন করে তুলেছে। বিরোধী দলগুলির আশা ছিল, এই সুযোগে স্থানীয় কাউন্সিল নির্বাচনে ভাল ফল করবে তারা।
তবে ফল ঘোষণার পর দেখা যাচ্ছে, যতটি আশা করেছিল লেবার পার্টি, ততটা ভাল ফল করতে পারেনি তারা।
নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল অনুযায়ী, লেবার পার্টি নিয়ন্ত্রিত কাউন্সিল ৭৪টি। কনজারভেটিভের ৩৫টি এবং লিবারেল ডেমোক্র্যাট দলের দখলে আছে ১৬টি। অন্যান্য দলের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে ৯টি কাউন্সিল। আর ৬৬টি কাউন্সিলে কোনো দলের একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নেই।
অন্যদিকে এবার লেবারের কাউন্সিলার পদ ১০৮টি বেড়ে হয়েছে ৩ হাজার ৭৩টি। কনজারভেটিভ দলের কাউন্সিলার পদ ৪৮৭টি কমে হয়েছে ১৪শ। লিবারেল ডেমোক্র্যাট দলের কাউন্সিলার ২২৩ জন বেড়ে হয়েছে ৮৬৮। এছাড়া স্বতন্ত্র ২০ জন বেড়ে ৬১৩, এসএনপির ২২ জন বেড়ে ৪৫৩, প্লাইড কামরির ৬ জন কমে ২০২, গ্রিন পার্টির ৮৭ জন বেড়ে ১৫৯ এবং রেসিডেন্টস এসক্সের ১০ জন বেড়ে ৫১ জন হয়েছে।  
প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন নির্বাচনের ফলাফলকে মিশ্র বলে আখ্যায়িত করেছেন। তবে নির্বাচনের এই ফলাফল নিয়ে দলের মধ্যে তিনি নতুন করে চাপে পড়েছেন। স্থানীয় রাজনীতিকরা দলের খারাপ ফলাফলের জন্য প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের বিতর্কিত কর্মকাণ্ডকে দায়ী করছে।